প্রকাশিত হচ্ছে ‘কারাগারের রোজনামচা’র ইংরেজি অনুবাদ

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দ্বিতীয় গ্রন্থ ‘কারাগারের রোজনামচা’র ইংরেজি অনুবাদ প্রকাশ করছে বাংলা একাডেমি। বইটির ইংরেজি সংস্করণ শিরোনাম রাখা হয়েছে ‘প্রিজন ডায়েরি’। খবর বাসসের।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর লেখা বহুল পঠিত ও বিক্রীত এই বইটির প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমির সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে এই তথ্য জানানো হয়। ইংরেজিতে বইটি প্রকাশের কাজ এগিয়ে চলছে বলে একাডেমি থেকে জানানো হয়। বইটি ইংরেজিতে অনুবাদ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ফকরুল আলম। ইংরেজিতে অনুবাদ করা বইটি প্রায় সাড়ে তিনশ পৃষ্ঠায় প্রকাশিত হচ্ছে।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক তত্ত্বাবধানে জাতির জনকের এই বইটি ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে একুশের গ্রন্থমেলায় প্রথম প্রকাশ করে বাংলা একাডেমি দেশ-বিদেশে বহুল পঠিত ও সমাদৃত হয় বইটি। বাংলা ভাষায় প্রকাশিত বইটির ইতোমধ্যে কয়েকটি সংস্করণ হয়েছে এবং তিনটি সংস্করণের বই বিক্রিও শেষ হয়ে গেছে। এখন বাজারে বইটির চতুর্থ সংস্করণ বিক্রি হচ্ছে। দেশে বাংলা ভাষার বই বিক্রির ইতিহাসে এই বইটি অন্যতম অবস্থান লাভ করেছে।

গত একুশের বইমেলায় বইটির প্রথম সংস্করণ বিক্রি শেষ হয়ে যায় এবং গত মে মাসে দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশ করা হয়। দ্বিতীয় সংস্করণও শেষ হয়ে যায় দেশ-বিদেশে বইটির বিপুল চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে একাডেমি তৃতীয় সংস্করণ প্রকাশের পদক্ষেপ গ্রহণ করে। তৃতীয় সংস্করণে আরো উন্নতমানের কাগজে বইটি ছাপা হয়। এ পর্যন্ত বইটি প্রায় ৩০ হাজার কপি বিক্রি হয়েছে।

বইটির ভূমিকায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিখেছেন ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী ’বাঙালি জাতির অধিকার আদায়ের সংগ্রামের পথপ্রদর্শক। ভাষা আন্দোলন থেকে ধাপে ধাপে স্বাধীনতা অর্জনের সোপানগুলো যে কত বন্ধুর পথ অতিক্রম করে এগুতে হয়েছে তার কিছুটা এই ‘কারাগারের রোজনামচা’ থেকে পাওয়া যাবে।’ তিনি লিখেছেন ‘স্বাধীন বাংলাদেশ ও স্বাধীন জাতি হিসেবে বাঙালি মর্যাদা পেয়েছেন সংগ্রামের মধ্যদিয়ে। সেই সংগ্রামের ব্যথা, বেদনা, অশ্রু ও রক্তের ইতিহাস রয়েছে কারাগারের রোজনামচায়।’

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ড. শামসুজ্জামান খান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ‘কারাগারের রোজনামচা’ গ্রন্থটি প্রকাশের পর দেশ-বিদেশে বিপুলভাবে পাঠকপ্রিয়তা লাভ করেছে। বাংলা ভাষার বইটি কয়েকটি সংস্করণ বিক্রি হয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার অনুমোদনক্রমে আমরা এটার ইংরেজি সংস্করণ প্রকাশের উদ্যোগ গ্রহণ করি। ইংরেজিতে বইটি অনুবাদের কাজ শেষ হয়ে এখন প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। আশা করছি আগামী বইমেলায় বইটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোড়ক উন্মোচন করবেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর এই বইটি দেশ-বিদেশের পাঠকদের কাছে ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করে। ইতিপূর্বে কোন বই এতো চাহিদা লক্ষ্য করা যায়নি। দেশের বাইরে কলকাতা, লন্ডন ও নিউইয়র্কের মেলায়ও বইটি বিপুলসংখ্যক কপি বিক্রি হয়। পাঠকের ব্যাপক চাহিদার কথা বিবেচনায় এনে বইটির বাংলা ভাষায় নতুন পাঁচটি সংস্করণের কাজ চলছে। পাঁচটি সংস্করণে ৫০ হাজার কপি ছাপা হচ্ছে। তিনি জানান, অন্যান্য ভাষার পাঠকদের চাহিদার কথা বিবেচনায় এনে বইটি ইংরেজি সংস্করণ প্রকাশ করছেন তারা। ইংরেজি সংস্করণ প্রকাশ করতে অন্যান্য ভাষার অনেক পাঠকদের কাছ থেকে অনুরোধ আসায় একাডেমি এই উদ্যোগ নিয়েছে।

ইংরেজি সংস্করণের প্রকাশক ও কর্মসূচি পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন বাংলা একাডেমির মোবারক হোসেন। বইটির গ্রন্থস্বত্ব হচ্ছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্ট। প্রথম প্রকাশের প্রচ্ছদ ও গ্রন্থ নকশা করেছেন তারিক সুজাত এবং প্রচ্ছদে ব্যবহৃত পোট্রেট এঁকেছেন রাসেল কান্তি দাশ। ইংরেজি সংস্করণে নতুন প্রচ্ছদ ও অঙ্গসজ্জা হচ্ছে। বইটি প্রকাশের পর বিদেশের কয়েকটি বইমেলায় প্রচুর বিক্রি হয়। দেশ-বিদেশের পাঠকদের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতেই ইংরোজি সংস্করণ প্রকাশ করা হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/১৭অক্টোবর/জেবি)

ইমাম-মুয়াজ্জিনদের সম্মানী ও আমাদের দায়

October 22, 2017

শরৎচন্দ্রের গল্পে নির্যাতিত মুসলিমদের কথা

October 22, 2017

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *