ইউরোপের কোনো প্রয়োজন নেই -এরদোগান

রোহিঙ্গা ট্রাজেডি নিয়ে ইউরোপের দেশগুলোর নির্লিপ্ততায় চরম ক্ষুব্ধ হয়েছে মুসলিম রাষ্ট্র তুরস্ক। তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, ইউরোপই তুরস্কের মুখাপেক্ষী, তুরস্ক ইউরোপের মুখাপেক্ষী নয়।

তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারার প্রেসিডেন্সিয়াল পেলেসে আয়োজিত বোসনিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আলী ইজ্জত বেগোতিসের স্মরণ সভায় এরদোগান এ কথা বলেন।

এরদোগান ইউরোপীয় রাষ্ট্রগুলোর সমালোচনা করে বলেন, আশির দশকে ইউরোপের দেশগুলো বোসনিয়ার জনগণেরর জন্য মানবাধিকার, গণতন্ত্র, এবং স্বাধীনতাকে স্বীকার করেনি, আর এখন একই দৃষ্টিভঙ্গি লালন করছে সিরিয়া, ফিলিস্তিন এবং লিবিয়ার জনগণের জন্য।

পশ্চিমা বিশ্বকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে এরদোগান বলেন, যারা বোসনিয়ার বর্বরতাকে অবজ্ঞা করেছিল তারাই এখন মিয়ানমারের আরাকানের বর্বরতার সামনে নিরব থাকে।

তিনি আরো বলেন,আমরা এখন বোসনিয়ার জনগণের মতো, যারা তাদের ইতিহাস নিজেদের রক্ত দিয়ে রচনা করেছে এবং তাদের জওয়ানদের যৌবনের শুরুতেই স্বাধীনতার জন্য প্রস্তুত করেছে।

তিনি আরো বলেন, আল্লাহ চাহেতো আমরা বোসনিয়াকে রক্ষা করবো এবং বোসনিয়ার জনগণের জন্য সহযোগিতা সব সময় অব্যাহত রাখব।
তিনি জোরদিয়ে বলেন, তুরস্ক তার স্ট্রাটেজিক উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ, কিছুতেই পিছু হটবে না। যদি কেউ তুরস্ককে নতজানু করতে চায় সে অতি অবশ্যই ভুল করবে।

বক্তৃতার শেষে তিনি বলেন, ইউরোপের কোনো প্রয়োজন নেই তুরস্কের, বরং ইউরোপই তুরস্কের মুখাপেক্ষী।

‘যে কারণে ব্রিটেনের মুসলিম নারীদের অভিজ্ঞতা নিয়ে ডকুমেন্টারি করলাম’

October 26, 2017

ইরানে পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যার তথ্য পাচার, মোসাদের গুপ্তচরের ফাঁসি

October 26, 2017

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *