বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্ক হ্যাকারদের

হ্যাকিং তৎপরতায় উত্তর কোরিয়ার হ্যাকিং গ্রুপ লাজারাস এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অনেক দেশসহ বিশ্বব্যাপী অসংখ্য সার্ভার ব্যবহার করছে। তারা গড়ে তুলেছে বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্ক। রাশিয়ার সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ক্যাসপারস্কি ল্যাবের অনুসন্ধানে এ বিষয়টি বেরিয়ে এসেছে।

এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনকুইরার। এতে বলা হয়, এ প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন দেশে বা প্রতিানে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে সাইবার হামলা চালায় লাজারাস হ্যাকারগোষ্ঠী। ক্যাসপারস্কি ল্যাব এক বিবৃতিতে বলেছে, যেসব সার্ভার হ্যাক হয়েছিল তা ছিল এই গ্রুপটির বিশ্বব্যাপী কমান্ড ও অবকাঠামোগুলোর ওপর নিয়ন্ত্রণের অংশ। এমন সার্ভার তারা পেয়েছে ইন্দোনেশিয়া, ভারত, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, থাইল্যান্ডসহ আরো অনেক দেশে।

ক্যাসপারস্কি বলেছে, হ্যাক হওয়া সার্ভার ব্যবহার করে লাজারাস বিভিন্ন কোম্পানি অথবা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে থাকতে পারে। লাজারাস হলো উত্তর কোরিয়ার একটি হ্যাকিং গ্রুপ। এতে রাষ্ট্রীয় মদত থাকতে পারে বলে দাবি করেছে ক্যাসপারস্কি। এতে আরো বলা হয়েছে, ২০১৩ সাল থেকে এই হ্যাকারগোষ্ঠী হ্যাকিং করতে ব্যবহার করছে নামের একটি মেলওয়্যার।

এটি ব্যবহার করেই তারা সার্ভারগুলোকে আক্রান্ত করেছিল বলে দাবি ক্যাসপারস্কির গবেষকদের। মাইক্রোসফট ইন্টারনেট ইনফরমেশন সার্ভিসেস ৬.০-এর কোড ভেঙে তাতে এই মেলওয়্যারটি প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল। এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সবচেয়ে ঝুঁকিতে রয়েছে এমন পাঁচটি দেশের মধ্যে সর্বশীর্ষে আছে তিনটি দেশ। তারা হলো চীন, ভারত ও হংকং।

চীনে এমন বিপদের মুখে রয়েছে ৭৮৪৮ টি সার্ভার। ভারতে ১৫২৪টি ও হংকংয়ে ১১০২টি সার্ভার। ক্যাসপারস্কি আরো বলেছে, সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে ঝুঁকির মুখে রয়েছে ১১৯৪৯ টি সার্ভার। যুক্তরাজ্য বা বৃটেন এক্ষেত্রে রয়েছে ঝুঁকির তালিকায় পঞ্চম স্থানে। সেখানে ঝুঁকিতে রয়েছে ৮০৫টি সার্ভার। এতে বলা হয়েছে, যদি ম্যানুস্ক্রিপ্ট নামের মেলওয়্যারটি কোনেখভাবে কমপিউটারের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে তাহলে তার মধ্য দিয়ে সংশ্লিষ্ট সার্ভার যুক্ত হয়ে যায় হ্যাকারের সঙ্গে। এর ফলে ওই হ্যাকার আরো মেলওয়্যার যোগ করে সার্ভারে।

এমন অনেকগুলো মেলওয়্যার সার্ভারে সনাক্ত করতে পেরেছেন ক্যাসপারস্কি ল্যাবের গবেষকরা। এর মধ্যে রয়েছে ইনফরমেশন হার্ভেস্টার। এই টুলটি ব্যবহার করে একজন হ্যাকার ভিকটিমের অবকাঠামো বা সার্ভার থেকে তথ্য চুরি করতে পারে। ক্যাসপারস্কি ল্যাবের নিরাপত্তা বিষয়ক সিনিয়র গবেষক পার্ক সেঙ্গসু বলেছেন, লাজারাসের মতো হ্যাকার গ্রুপের হামলার ক্রমাগত টার্গেটে পড়ার আতঙ্ক ক্রমাগত বাড়ছে কোম্পানিগুলোতে। তাদের নিজস্ব করপোরেট সার্ভার আক্রান্ত হতে পারে। এনকুইরার অনলাইন।

বিয়ে স্বপ্ন থেকে অষ্টপ্রহর– মির্জা ইয়াওয়ার বেগ

October 27, 2017

অন্য দেশের হয়ে খেললে কিংবদন্তি হতেন এই ৫ ভারতীয়!

October 27, 2017

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *