রোহিঙ্গা শিবির দেখতে আজ ঢাকা ছাড়ছেন খালেদা জিয়া, পথে পথে শোডাউনের প্রস্তুতি

রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে আজ চার দিনের সফরে ঢাকা ছাড়ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সকাল ১০টায় নিজ বাসভবন থেকে বের হয়ে সড়ক পথে চট্টগ্রাম গিয়ে রাতযাপন করবেন তিনি। সেখান থেকে রোববার কক্সবাজার যাবেন। পরেরদিন সোমবার রোহিঙ্গা শিবিরের বিভিন্ন স্পট পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ করে মঙ্গলবার তার চট্টগ্রাম হয়ে ঢাকা ফেরার কথা রয়েছে। এই সফরকে কেন্দ্র করে ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত্ম ব্যাপক শো-ডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছে বিএনপি।

জানা গেছে, আজ সকাল ১০টায় খালেদা জিয়ার ফিরোজা বাসভবন থেকে বের হয়ে যে সড়ক পথ ব্যবহার করে চট্টগ্রাম পৌঁছবেন সেসব পথের দুই ধারে মানুষের ঢল নামানোর চিন্ত্মাসহ তার গাড়িবহরেও হাজার-হাজার নেতাকর্মী বহনকারী গাড়ি সংযুক্ত থাকবে। একইভাবে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার যাওয়ার সড়কেও তাকে ব্যাপক সংবর্ধনা দেয়ার আয়োজন করা হয়েছে।

বিএনপির দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, আজ দুপুরে ফেনী সার্কিট হাউসে যাত্রাবিরতি করবেন। বিকাল ৩টায় তিনি ফেনী থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওয়ানা হয়ে চট্টগ্রাম গিয়ে সার্কিট হাউসে রাতযাপন করবেন। আগামীকাল সকাল ১১টায় কক্সবাজারের উদ্দেশে রওয়ানা হয়ে কক্সবাজার সার্কিট হাউসে রাতযাপন করবেন। সোমবার সকাল ১১টা থেকে বালুখালি পানবাজারসহ ৪টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ করবেন। এদিন তিনি চট্টগ্রামের উদ্দেশে বিকালে কক্সবাজার হয়ে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে রাতযাপন করবেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হবেন। পথিমধ্যে ফেনী সার্কিট হাউসে যাত্রাবিরতি করবেন।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জানান, খালেদা জিয়ার কক্সবাজার সফরকে কেন্দ্র করে দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা সকল অঙ্গ সংগঠনসহ মুন্সীগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ জেলা, মহানগর ও কুমিলস্না জেলা-মহানগর নেতাদের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন। এসব বৈঠক থেকে খালেদা জিয়ার বাসভবন থেকে শুরম্ন করে তার যাতায়াতের পথের সব জায়গায় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের ঢল নামাতে সংশিস্নষ্টদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এ সময় শৃঙ্খলার বিষয়টিকেও গুরম্নত্ব দিতে জেলার দায়িত্বশীল নেতাদের পরামর্শ দেয়া হয়। রাজধানী ঢাকার প্রবেশদ্বার যাত্রাবাড়ী-সায়দাবাদ এলাকায় নেতাকর্মীদের নিয়ে সব থেকে বড় শোডাউনের ব্যবস্থা করতেও বলা হয়েছে।

এ এলাকার দায়িত্বশীল নেতা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন জানান, চেয়ারপারসন ফ্লাইওভার দিয়ে শনির আখড়া হয়ে চট্টগ্রামের দিকে যাবেন। নেতাকর্মীসহ উৎসুক জনগণ বেগম খালেদা জিয়াকে একনজর দেখার জন্য এমনিতেই ভিড় করেন। এরপরও সাংগঠনিকভাবে এ এলাকার পক্ষ থেকে শনিরআখড়া থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত্ম সুশৃঙ্খলভাবে স্বাগত জানানোর প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ইউনেসকো ‘ইসরায়েলবিরোধী’, তাই সদস্যপদ প্রত্যাহার যুক্তরাষ্ট্রের

October 28, 2017

কাতালোনিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা, মেসিদের কী হবে?

October 28, 2017

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *