রাবিতে শিবির-ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি মিছিল, ক্যাম্পাসে অাতঙ্ক

রাবি লাইভ: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা এক শিবির নেতাকে পিটিয়ে পুলিশে সোপর্দ করার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মিছিল করেছে ছাত্রশিবির ও ছাত্রলীগ। সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ ও ক্যাম্পাস সংলগ্ন বিনোদপুরে শিবির মিছিল করে।

এসময় শিবিরে মিছিল থেকে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়, পরে ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে প্রকাশ্য অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেয়। দুই দলের এই পাল্টাপাল্টি অবস্থানের কারণে ক্যাম্পাসে অাতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

ছাত্রলীগ মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করা শিক্ষার্থীর নাম আরিফুল ইসলাম আরিফ। সে ফার্সি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, দুপর দেড়টার দিকে শিবিরের নেতা-কর্মীরা সাবাশ বাংলার মাঠে অবস্থান করছেন এমন তথ্যের ভিত্তিতে ছাত্রলীগের সংগঠনিক সম্পাদক সাবরুন জামিল সুস্ময় ও চঞ্চল কুমার অর্ক নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা যায়। সেখান থেকে শিবিরের নেতা আরিফকে ধরে নিয়ে যায় ছাত্রলীগ। তারা আরিফকে বঙ্গবন্ধু হলের ২২২ নম্বর কক্ষে নিয়ে এসে হাতে-পায়ে উপর্র্যুপুরি মারধর করে। মারধরের কারণে হাত ও পা ভেঙ্গে যায়। পরে ৩টার দিকে পুলিশে সোপর্দ করে ছাত্রলীগ। পুলিশ তাকে নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করে।

এদিকে পুলিশে সোপর্দ করার কিছুক্ষণ মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বেতার মাঠ থেকে প্রায় শতাধিক নেতা-কর্মী নিয়ে শিবির মিছিল করে। মিছিলটি বেতার মাঠ থেকে শুরু হয়ে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক দিয়ে মিতা স্টুডির পাশ দিয়ে মন্ডলের মোড়ের দিকে যায়। এসময় মিছিল থেকে দুই ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়।

শিবিরের মিছিলের পাল্টা জবাব দিতে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন হল থেকে বঙ্গবন্ধু হলের সামনে জড়ো হয়। পরে ৪টার দিকে অস্ত্র, চাপাতি, রড, ও লাঠি নিয়ে শতাধিক নেতা-কর্মী মিছিল বের করে। মিছিলটি ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে ছাত্রলীগের দলীয় ট্রেন্টে যেয়ে শেষ হয়।

এঘটনায় সূত্রপাত সম্পার্কে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক চঞ্চল কুমার অর্ক বলেন, ‘দুপুরে শিবির মেইন গেটের দিকে অবস্থান নিয়েছে শুনে আমরা যাই, সেখানে যাওয়ার পরে শিবিরের নেতা-কর্মীরা ভয়ে পালিয়ে যায়। সেখান থেকে শিবিরের সোহরাওয়ার্দী হলের সাধারণ সম্পাদককে ধরি।’

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘আরিফ সোহরাওয়ার্দী হল শিবিরের সাধারণ সম্পাদক। তাকে পুলিশে দেওয়ায় শিবিরর বিনোদপুরের বিক্ষোভ ও ককটেল ফুটিয়েছে। আমরা ছাত্রলীগ সর্বদা প্রস্তুত আছি শিবিরের মোকাবেলা করতে।’

এবিষয়ে প্রক্টর প্রফেসর লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমি রাজশাহীর বাহিরে আছি। আমি না থাকায় এই দায়িত্ব আছেন ছাত্র-উপদেষ্টা।’

যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর জান্নতুল ফেরদৌস ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘ছাত্রলীগ একজনকে পুলিশে দেওয়ায় শিবির মিছিল করেছে। তার পাল্টা ছাত্রলীগও মিছিল করেছে। তবে এখন পরিবেশ স্বাভাবিক আছে।’

মতিহার থানার ওসি তদন্ত মাহবুবুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ‘ছাত্রলীগ তাকে মারধর করে পুলিশে দিলে আমরা তাকে নিয়ে রামেকে ভর্তি করি। বর্তমানে ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছে।

মানবতার স্বার্থে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিন- খালেদা জিয়ার আহবান

October 30, 2017

ইসলামের ছায়াতলে ৬ সফল পেশাজীবী

October 30, 2017

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *