নারী যখন রানি

লেখক ড. মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফী

প্রকাশক হুদহুদ প্রকাশন

আইএসবিএন 987984811122

পৃষ্ঠা সংখ্যা ১৯৮

মুদ্রিত মুল্য ৳ ২৬০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ১৬৯.০০(-35% Off)

রেটিং

ক্যাটাগরি ইসলামে নারী , ইসলামি বই , নারী

একজন “নারী” কখন “রানি”হতে কিভাবে পারে?কিভাবে রানি হতে পারে??পৃথিবীর সূচনাকাল থেকেই যেসমাজে নারীরা অবহেলিত-বঞ্চিত-নিপীড়িত-নির্যাতিত,ঠিক সেই সমাজেই আবার নারীকে আহবান করা হচ্ছে রানি হতে!স্বপ্ন দেখানো হচ্ছে,রানির মুকুট পড়তে!!বাণী শোনানো হচ্ছে সেই রাজপ্রাসাদের,যে নারী কিনা চাইলেই হতে পারে সেই রাজপ্রাসাদের রানি!!!আহা!কী মধুর বাণী! কিন্তু,কে শোনালো এই মধুর বাণী?কে দিল নারীকে এই সম্মান??এই জরাজীর্ণ পৃথিবীতে কেই’বা নারীকে দেখালো,রানি হবার মতন এমন দুঃস্বপ্ন??? অবাক হবার কিছুই নেই।তিঁনিই(আল্লাহ),যিনি এই মধুর বাণী শুনিয়েছেন।তিঁনিই একমাত্র ইলাহ,যিনি এই স্বর্গীয় প্রাসাদের রানি হবার স্বপ্ন দেখিয়েছেন।তিঁনিই ইবাদাতের একমাত্র যোগ্য এবং উপযুক্ত মালিক,যিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে তাঁর ওয়াদা সত্য।হ্যাঁ,তিঁনিই মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীন,যিনি তাঁর রাসূলকেপাঠিয়ে আমাদেরকে হেদায়াতের পথ দেখিয়ে দিয়েছেন,আলহামদুলিল্লাহ।তিঁনিই(আল্লাহ) তাঁর রাসূলের মাধ্যমে আমাদেরকে শিখিয়ে দিয়েছেন যে,কখন-কীভাবে একজন নারী,রানি হতে পারে!O Woman!When you are a Queen. আর “নারী যখন রানি” বইয়ের লেখক-‘শায়খ ড. মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফি’ খুবই সুনিপুঁনভাবে তাঁর সুযোগ্য পরিবেশনার দ্বারা চমৎকৃত উপস্থাপনা তুলে ধরেছেন এই কিতাবটিতে। ইটা পড়ার সময়ে শুধু ভেবেই যাচ্ছিলাম,আমিও কেন রানি হব না?যারা ইসলামের জন্য-দ্বীনের জন্য,প্রতিকূল পরিবেশেও নিজের জীবনকে বাজি রেখে দ্ব্যর্থহীন কষ্ট সহ্য করেছেন,আর আমার কষ্ট তো তাদের তুলানায় কিছুই নয়।লেখক বারবারই নারীদেরকে উদ্দেশ্য করে এই প্রশ্ন করেছেন যে,হে নারী!তোমার মর্যাদা কোথায়??আর তুমি আছো কোথায়??কীসের নেশায় ছুঁটে চলেছো তোমরা,রঙ্গীন এই পৃথিবীর দিকে?? ১৯৮ পৃষ্ঠার এই বইটা আমাদের নারী-পুরুষ সবারই পড়া উচিত।কারণ,আল্লাহ চাহেন তো নারী-পুরুষ উভয়েরই জীবন পাল্টে যেতে পারে এই বইটির অসিলায়।আর,কাওকে উপহার দেওয়ার জন্য,হেদায়েতের পথে আসার মত এরকম একটি বইয়ের তো তুলনাই হয়না,আলহামদুলিল্লাহ।

 

‘নারী যখন রানি’ বইটি বিশ্ববরেন্য লেখক ডঃ মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফী এর লেখা একটি অসাধারন বই । ডঃ মুহাম্মাদ ইবনে আব্দুর রহমান আরিফী একজন অতি পরিচিত নাম । তিনি তার বক্তৃতা ও লেখনীর মাধ্যমে অল্পদিনের মধ্যেই আরব ও অনারব সকল স্থানেই সাড়া ফেলেছেন । পশ্চিমা দুনিয়াতেও ইসলামী রেনেসার অগ্রদুত হিসেবে তার নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য । তার জন্ম ১৯৭০ সালের ১৬ জুলাই । তিনি ইসলামের ইতিহাসের অন্যতম সেনা নায়ক খালিদ ইবনে ওয়ালিদ এর বংশধর । তিনি তার জীবনে অনেক বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও আলেমের সংস্পর্শে আসার সৌভাগ্য পেয়েছিলেন এবং তাদের থেকে তিনি জ্ঞান অর্জন করে নিতে পেরেছেন । তিনি ইসলামী দাওয়াত দেওয়া কে নিজের জীবনের লক্ষ হিসেবে নিয়েছেন এবং এই কারনে সে মানবজাতির হেদায়েতের জন্য জ্ঞানগর্ভ ভাষন দিয়ে থাকেন । তার বক্তৃতা সকল স্থানেই পাওয়া যায় যা বেশ জনপ্রিয় । তার লেখা প্রায় পচিশটি বই রয়েছে যা সবগুলোই জনপ্রিয় । অনেক ভাষায় অনুদিত হয়ে তার বই প্রকাশিত হয় । তেমনি নারী যখন রানি বইটি বাংলাতে অনুবাদ করে প্রকাশ করেন মাওলানা মাহমুদ হাসান কাসেমি । আপাতদৃষ্টি তে অনেকেই মনে করে থাকেন যে ইসলামে নারীদের প্রাপ্য মর্যাদা দেয় না । ইসলামে নারীদের জন্য নেই কোনো অধিকার , এট অনেকেরই ধারনা , এই ভুল ধারনার পিছে মুল কারন হচ্ছে ইসলাম সম্পর্কে অজ্ঞতা । কারন ইসলামে নারীদের যে পরিমান সন্মান ও মর্যাদা দেওয়া হয়েছে যা পৃথিবীর অন্য কোন ধর্মে দেওয়া হয় নি । বইটি তে নারীদের অতিতের অনেক ঐতিহাসিক তৎপরতা তুলে ধরা হয়েছে যাতে নারী সমাজ বুঝতে পারে নারীর কর্তব্য ও তাদের অধিকার । নারীসমাজ পারে একটি সমাজ কে ভুল পথে চালনা করতে । তাই নারীদের জন্য বইটি লিখেছেন লেখক যা আমাদের দেশের তথাপি বিশ্বের সকল স্থানের নারীদের জন্য জানা থাকা অত্যান্ত গুরুত্বপুর্ন । আশা করা যায় বইটি পড়লে আমাদের দেশের নারী এবং পুরুষের জন্য শিক্ষনীয় অনেক ব্যাপার খুজে পাবেন পাঠকেরা ।

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন

এই বিষয়ে অন্যান্য বই