রাজকুমারী - ১ : দ্য সিক্রেট অব দ্য টেম্পল

লেখক ড. করম হোসাইন শাহরাহি

অনুবাদক কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক

প্রকাশক নবপ্রকাশ

পৃষ্ঠা সংখ্যা 264

মুদ্রিত মুল্য ৳ ৩০০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ১৮০.০০

রেটিং

ক্যাটাগরি রহস্য, ভৌতিক, থ্রিলার ও অ্যাডভেঞ্চার , অনুবাদ

উপন্যাসের প্রতি সব শ্রেণি পেশার মানুষের একটা মোহ-টান কাজ করে। সেটা হোক বাধাই করা কোনো কাগজের স্তুপ বা সমাপ্ত যামিনীর অসমাপ্ত কেচ্ছা। চলমান বাজারে যেসব উপন্যাস পাঠকপ্রিয়তা ধরে রেখেছে সেগুলো প্রেম, বিরহ, অভিমান, যুদ্ধ, জিহাদ বা ইতিহাস— এই বিষয়গুলোর উপরে লেখা। মানুষের স্বভাবজাত হচ্ছে, কোনো একটা কাহিনি শুরু হলে সেটার শেষ অবধি জানা। হয়তো ঠিক এ কারণেই পাঠক-সংসারে উপন্যাসের চাহিদা বেশি।

উপন্যাস সাংস্কৃতিক বিপ্লবে একটা বড় অবদান রাখে। গুটিকয়েক নষ্ট মনমানসিকতাওয়ালা লেখক নষ্টামিপূর্ণ কল্প-কাহিনি লেখে সমাজটাকে ঠিক তাদের মত করে সাজাতে চেয়েছিলো। সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে চিন্তক রুচিশীল লেখকগণ তাদের ক্ষুরধার লেখনী দিয়ে সেই সব নষ্ট লেখকদের মুখোশ উন্মোচিত করে দিয়েছেন। উভয় জাহানে তাঁদের সর্বাঙ্গীণ কল্যাণ কামনা করি। এমন লেখকমহল প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম বেঁচে থাকুক। আলো দিয়ে যাক নিরন্তর।
এঁদের আলো না পেলে প্রজন্ম নিশ্চিত কঠিন জুলমাতে নিক্ষেপিত হবে।

রাজকুমারী। একটি পাঁচ খণ্ডের ঐতিহাসিক উপন্যাসগ্রন্থ। উপন্যাসের মোড়কে রহস্যময় ইতিহাসের এক নতুন দোর। চেপে যাওয়া ইতিহাসের উদ্ভাসিত ভোর।

ধর্মের নামে ভণ্ডামি, উপাসনালয়ে সাধুদের যৌনাচার, ধর্মীয় গোঁড়ামি, সাম্প্রদায়িকতা, কলুষিত বর্ণবাদ, পুরুষরূপী অমানুষদের ঘৃণ্য অনাচার এবং এসব নোংরামির বিরুদ্ধে জেগে ওঠা বীরদের বীরত্বের কাহিনি বর্ণিত হয়েছে রাজকুমারী সিরিজের প্রতিটি খণ্ডের প্রতিটি পৃষ্ঠায়।
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, মানবপ্রেম, প্রেম, ভালোবাসা, অশ্রু, যুদ্ধজয়, রণাঙ্গনের বীরত্বকথা, মমতাময়ী মায়ের আদর, পিতার স্নেহ, বন্ধুত্বের বন্ধন, প্রজার প্রতি রাজার আত্মত্যাগ, হিন্দু অচ্ছুৎ জাতির সমঅধিকার প্রতিষ্ঠাসহ শিক্ষনীয় ইতিহাসের এক মলাটবদ্ধ উপহার।
ড. করম হোসাইন শাহরাহি তাঁর লেখিত পাঁচ খণ্ডের বিশাল ‘রাজকুমারী’ উপন্যাসে নির্লজ্জ, বেহায়া, লোভী, ধর্মান্ধ, স্বার্থান্বেষী লোকদের মুখোশ খুলে দিয়েছেন। তিনি কল্পিত কাহিনির পথ ছেড়ে কঠিন বাস্তবতাকে জাতির সামনে তুলে ধরেছেন সুনিপুণভাবে। তাঁর উদ্দেশ্যই ছিলো ঘুমন্ত জাতিকে জাগ্রত করে চেপে রাখা ইতিহাসের খবর দেওয়া। তিনি কোনো পেশাধারী লেখক নন। সময়ের খুব বেশি প্রয়োজনে জাতির উপকারার্থে তিনি যে কলম ধরেছেন তা সহজেই বোঝা যায়। তাই তো তাঁর লেখিত আর কোনো উপন্যাস-গ্রন্থ বা বইয়ের খোঁজ মেলেনি। বাংলা-বিহার-উড়িষ্যার রহস্যঘন অতীত তার ঘুর্ণিবাতাসের বিচিত্রিত কান্না-হাসির প্রাঞ্জল বর্ণনা ‘রাজকুমারী’ সিরিজের প্রধান বৈশিষ্ট্য। ষোড়শ শতকে বাংলা ভূখণ্ডের নজিরবিহীন সফল শাসক আলি কুলি খানের কীর্তি কাহিনি প্রস্ফুটিত হয়েছে ড. করম হোসাইন শাহরাহির কলমের প্রতিটি খোঁচায়। উর্দু ও সাংস্কৃতিক শব্দের মিশেলে তার এই একটিমাত্র উপন্যাস। অগোচরে থাকা ইতিহাসের সঠিক জ্ঞানের উপঢৌকন, মুসলিম বীরদের গৌরবান্বিত ঘটনাবলি, বাংলাভাষীদের হাতে তুলে দেওয়ার কঠিন স্বপ্ন দেখলো নবপ্রকাশ-পরিবার।
উপন্যাসটি বাংলাভাষায় অনুবাদের জন্য তারা তুলে দিলেন রুচিশীল লেখক, অনুবাদক ও বিশ্লেষণধর্মী সফল কলাম-লেখক কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক সাহেবের হাতে। তাঁর দক্ষতার ফলে আপনি পাবেন রাজকুমারীর প্রতিটি লাইনে সাহিত্যরসের অনন্য স্বাদ।
তিনি ফাসাহাত বালাগাতের অলঙ্কারে অলঙ্কৃত করেছেন প্রতিটি শব্দ।

জাহিলিয়াতের সেই নিকষকালো অন্ধকার, নির্যাতন, নিপীড়ন, অনৈতিকতাকে চিরতরে দাফন করে দেবার লক্ষে তৎকালে জেগে উঠেছিলো নবাব আলি কুলি খান, নাদের খান, স্বামী মনোহর লাল, শেখর, উদ্যম খান, সবিতা কুমার, ফিরোজ খান, সাইয়িদ হায়দার ইমাম, রামদাস, গোপালজি, বিমলা, ইসমাইল, হাশিমসহ যুদ্ধজয় এক কাফেলা। বহু সংগ্রাম ত্যাগ তিতিক্ষার পর জগতবাসীকে এনে দিয়েছিলেন বসবাসযোগ্য নতুন পৃথিবী। প্রেম ভালোবাসা দিয়ে ধুয়ে দিয়েছেন বাংলার রক্তমাখা পিচ্ছিল জনপথ।

এই বীর বিক্রম সিপাহীদের অনুপস্থিতিতে সমাজের বিভিন্ন পয়েন্টে ও জয়েন্টে আবারও শিকড় বিস্তৃত করে বসেছে অনৈতিকতার মসনদ। নৈরাজ্য, যৌনাচার। অনৈতিকতার বিরুদ্ধে নতুন প্রজন্ম থেকে ষোড়শ শতকের আলি কুলি খানদের সেই কাফেলার মত আরো একটি বিপ্লবী কাফেলা তৈরি হোক— এটাই রাজকুমারীর আহ্বান।

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন