কারা জান্নাতী কুমারীদের ভালবাসে -১ম খণ্ড

লেখক ড. শহীদ আব্দুল্লাহ আযযাম (রহঃ)

প্রকাশক আর রিহাব পাবলিকেশন্স

পৃষ্ঠা সংখ্যা ২২৪

মুদ্রিত মুল্য ৳ ৩৬০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ২১৬.০০(-40% Off)

রেটিং

ক্যাটাগরি পরকাল ও জান্নাত-জাহান্নাম

[১] বর্ণিত আছে মালিক ইবনে দিনার একদিন বসরার রাস্তায় হাঁটছিলেন। সেসময় তিনি কোনো এক ধনী ব্যক্তির এক দাসী দেখতে পেলেন যে কিনা আরোহী অবস্থায় ছিল এবং তার সেবার করার জন্য সাথে কিছু খাদেমও ছিল।

তাকে দেখামাত্র মালিক ইবনে দিনার উচ্চস্বরে বললেন, “ওহে দাসী, তোমাকে কি তোমার মনিব বিক্রয় করবে?”

দাসীটি বলল, “আপনি কী বললেন?”

মালিক আবার বললেন, “তোমাকে কি তোমার মনিব বিক্রয় করবে?”

দাসীটি এবার বলল, “যদি তিনি আমাকে বিক্রয় করেনও, তবুও কি আপনার মত কেউ আমাকে কিনতে পারবে?”

মালিক বললেন, “হ্যাঁ, আমি তা পারি। তোমার চেয়ে উত্তম দাসীও আমি কিনতে পারি।"

একথা শুনে দাসীটি হাসল এবং তার সাথে থাকা একজনকে বলল মালিক ইবনে দিনারকে তার সাথে নিয়ে আসতে।

গৃহে ফিরে সে তার মনিবের কাছে সবকিছু খুলে বললে সেও হাসল এবং মালিক ইবনে দিনারকে তার সামনে হাজির করতে বলল। মালিক যখনই ঘরে প্রবেশ করলেন, দাসীটির মনিবের মনে মালিকের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ সৃষ্টি হল।

সে শ্রদ্ধাভরে বলল, “আপনি কী চান?”

মালিক বললেন, “আপনার দাসীটি আমার নিকট বিক্রয় করুন।”

সে বলল, “আপনি কি তার দাম দিতে পারবেন?”

মালিক বললেন, “আমার কাছে তো দাসীটির দাম চুষে ফেলে দেওয়া খেজুরের আটির সমান।”

একথা শুনে উপস্থিত সকলে হেসে উঠল। ধনী ব্যক্তিটি বলল, “কীভাবে আপনার নিকট এই দাসীটির মূল্য এরকম হতে পারে?”

তিনি তখন বললেন, “কারণ দাসীটির ভেতর অগণিত ত্রুটি রয়েছে। লোকটি অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করল, "তার ভিতর কী কী ত্রুটি রয়েছে?” 
.
মালিক এবার বলতে আরম্ভ করলেন, “সে সুগন্ধি ব্যবহার না করলে তার শরীর দুর্গন্ধময় হয়ে যায়। মিসওয়াক না করলে মুখ গন্ধ হয়ে যায়। চিরুণি ও তেল ব্যবহার না করলে মাথায় উকুন হয়, এবং চুল এলোমেলো হয়ে যায়। কিছুকাল বয়স হলে বৃদ্ধা হয়ে যায়। তার হায়েজ হয়। তার ভিতর প্রশ্রাব পায়খানার মত ময়লা আবর্জনা রয়েছে।

তার মন খারাপ হয়। সে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ ও বিষন্ন হয়। সম্ভবত সে আপনাকে কেবল নিজ স্বার্থেই ভালবাসে এবং আপনি তাকে সুখে রেখেছেন বলেই আপনাকে পছন্দ করে। আপনি তার নিকট যা কিছু চান সে আপনার সব চাহিদা পূরণ করতে অক্ষম।

যতটুকু প্রেম সে প্রকাশ করে তার পুরোটা সত্য নয়। আপনার পর যে পুরুষই তার জীবনে আসবে তাকে সে আপনার মতোই ভালবাসবে ও পছন্দ করবে।

আপনি আপনার দাসীটির জন্য যে মূল্য চেয়েছেন তার তুলনায় আমি এমন এক দাসী ক্রয় করব যা কাফূর, মিশক এবং রত্ন দিয়ে তৈরি। তার লালা সমুদ্রের পানিতে মিশ্রিত করলে সমুদ্রের লবণাক্ত পানি মিষ্টি হয়ে যাবে। তার মিষ্টি কণ্ঠের ডাক শুনলে মৃতও সাড়া দেবে। যদি তার হাতের কবজি প্রকাশ হয়ে পড়ে তবে সূর্য অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে তাতে গ্রহণ লেগে যাবে। আঁধার আলোকিত ও উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। যদি সে তার পোশাক ও অলংকারসহ দিগন্তে দৃশ্যমান হয়, তবে অসীম ও অনন্ত দিগন্ত সুগন্ধ ও অলংকৃত হয়ে যাবে।

সে বেড়ে উঠেছে মিশক আর জাফরানের বাগানে। ইয়াকুতের তৈরি ঘরে। নিআমতের তাবুর অভ্যন্তরেই সে কেবল বিচরণ করেছে এবং তাসনীম নামক ঝর্ণার পানি দ্বারা তৃষ্ণা নিবারণ করেছে। সে তার ওয়াদার খেলাফ করে না। তার ভালবাসা পরিবর্তিত হয় না। তাহলে এই দুইজন দাসীর মধ্যে কে বেশি মূল্য পাবার যোগ্য?”
.
ধনী লোকটি বলল, “আপনি যে মেয়েটির বর্ণনা দিলেন সে-ই বেশি মূল্যের যোগ্য।”

তখন মালিক ইবনে দিনার বললেন, “এমন মেয়ে বিদ্যমান এবং সহজলভ্য আর তার ক্রয়ের জন্য যে কোনো দিন প্রস্তাব করা যেতে পারে।”

লোকটি বলল, “আল্লাহ আপনাকে রহম করুন। তার মূল্য কী?”
.
তিনি বললেন, “পছন্দনীয় কিছু পাওয়ার জন্য সবচেয়ে কম যা ব্যয় করা হয় তাই তার মূল্য। শুধু এতটুকু যে তুমি তোমার রাতের একটি অংশে অন্য সকল ব্যস্ততা থেকে অবসর নিয়ে ইখলাসের সহিত অন্তত দুই রাকাআত সলাত আদায় করবে। তোমার খাবার সামনে হাজির হলে নিজে অভুক্ত থেকে হলেও ক্ষূধার্ত ব্যক্তিকে খাওয়াবে অথবা পথ হতে পাথর-আবর্জনা বা কষ্টকর বিষয়াদি সরিয়ে ফেলবে। কম এবং প্রয়োজনীয় পরিমাণে সন্তুষ্ট থেকেই এই দুনিয়ার জীবন অতিবাহিত করবে। এই ধোঁকা এবং প্রতারণাময় জিন্দেগী যেন তোমার মনোযোগ আকর্ষণ না করে। তুমি এখানে অল্পে তুষ্ট হলে আগামীকাল কিয়ামতের দিন নিরাপদে সম্মানিত অবস্থানে অধিষ্ঠিত হতে পারবে এবং মহা সম্মানিত প্রভুর সান্নিধ্যে সুখময় স্থানে চিরস্থায়ী হতে পারবে।”
.
এই ছিল মালিক ইবনে দিনারের ঘটনা। আর আল্লাহর রাস্তার শহীদগণ এমন হুরেঈন পাবেন ৭০ জন! আল্লাহর পক্ষ থেকে এমন পুরষ্কারের ঘোষণা পাওয়ার পরও কী ভাইদেরকে আল্লাহর রাস্তা থেকে নিবৃত্ত রাখল?

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন

এই বিষয়ে অন্যান্য বই