ইসলাম ও গণতন্ত্র

লেখক মাওলানা আবদুল্লাহ আসেম উমর

অনুবাদক মুফতি ফজলুল হক আমিনী

সম্পাদক ড. মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফী

প্রকাশক মাকতাবাতুশ শরীয়াহ

পৃষ্ঠা সংখ্যা ২৫৬

মুদ্রিত মুল্য ৳ ১৭৫.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ১৭৫.০০(0% Off)

রেটিং

ক্যাটাগরি ইসলামি অনুবাদ বই

বর্তমান সময় বিবেচনায় কুফরী গণতন্ত্র সম্পর্কে প্রত্যেক মুসলিমদের জ্ঞান অর্জন ও অপর মুসলিমকে সে ব্যাপারে সজাগ করা ফরজ।

♦এখন বইটি কি নিয়ে লেখা হয়েছে এখন সে সম্পর্কে আপনাদের ধারণা দেবো যাতে সহজে বইটি পড়তে আগ্রহ জন্মায়। পাঠকবর্গের সুবিধার্থে কিতাবটিকে ৫অধ্যায়ে বিভক্ত করা হয়েছে....

♠ ১ম অধ্যায়ে তাকফীর বা কোনো মুসলমানকে কাফির বলার মূলনীতি সম্পর্কে আহলে সুন্নাহ'র নীতিমালার সংক্ষিপ্ত বর্ণনা।

♣২য় অধ্যায়ে গণতন্ত্রের আলোচনা।

♠৩য় অধ্যায়ে কুরআন-সুন্নাহকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন ও তার সাথে হঠকারিতা করে বিচারকার্য পরিচালনাকারী আদালতের হুকুম ও এর বিস্তারিত আলোচনা।

♣৪র্থ অধ্যায়ে গণতন্ত্রে অংশগ্রহণকারী অংশীদার সংগঠন ও ব্যক্তিদের হুকুম সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

♠আর সর্বশেষ অধ্যায়ে ইসলামী শাসনব্যবস্থা প্রবর্তনের নিমিত্তে সশস্ত্র সংগ্রাম পরিচালনার বিধান সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

🎬মূল বিষয়বস্তুঃ যেসব লোকেরা বলে থাকে, আমরা গণতন্ত্রের ঐসব বিষয় মানিনা, যা কুফরী। আমরা তো কেবল গণতন্ত্রের ঐসব বিষয় মেনে থাকি যা কুরআন-সুন্নাহ অনুযায়ী হয়।

🎓তাহলে পাল্টা প্রশ্ন থাকবে এটা কিভাবে সম্ভব যে হারামকে হারাম মনে করবে, অতঃপর সেই সংবিধান ও আইন কানুনকে পবিত্র মনে করবে যেখানে অগণিত হারামকে হালাল আর হালালকে হারাম করা হয়েছে?

পার্লামেন্টে যদি অধিকাংশ সংসদ সদস্য ইসলাম বিরোধী কোন আইন সমর্থন দেন তখন সেটা মানা জনগণের জন্য ফরজ হয়ে যায়। নাউযুবিল্লাহ। অথচ বিধান দেয়ার মালিক কেবল আল্লাহ।

🔔উপমহাদেশের রাজনৈতিক নেতৃবর্গের দাবী এটা যে, যদি তারা এই ব্যবস্থাকে অবলম্বন করে পার্লামেন্টে না যান, তাহলে মুসলমানদের দাবী দাওয়ার কথা কে বলবে?

🎓আফগানিস্তানে হক মুজাহিদ দল যেটি শাসন ক্ষমতায় এসেছে এবং ইসলামী শরীয়ত বাস্তবায়িত হয়েছে। অনেক মানুষ নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ১০লক্ষ। আল্লাহ তা'আলা কাউকে সহজেই কিছু দেন না, যতক্ষণ না সে আল্লাহর রাস্তায় কিছু কোরবানি পেশ করে। তাহলে উপমহাদেশের মানুষ কিভাবে এ আশা করে যে, হকপন্থি দলের শাসন বা এর মতো কোন শাসন প্রতিষ্ঠা হোক, কিন্তু সে জন্য যে কুরবানির প্রয়োজন তার জন্য প্রস্তুত নয়!!!

🔔কিছু লোক গণতন্ত্রটাই ইসলাম বলে প্রচার করে থাকে। তাদের দলীল হলো,ইসলাম ব্যক্তি স্বাধীনতার কথা বলে, আর ঠিক এই কথা গণতন্ত্র ও বলে। সুতরাং গণতন্ত্রই ইসলাম ও ইসলামই গণতন্ত্র।

🎓গণতন্ত্রে রাষ্ট্রপ্রধান এবং নির্দিষ্ট কিছু পদের অধিকারীরা পরিপূর্ণভাবে আইনের উর্ধ্বে তাদেরকে ইসলামিক আইনের উর্ধ্বেও মনে করা হয়। এখন প্রশ্ন হলো, কি করে শাসক শ্রেণীর বিপক্ষে কোন কিছু বললেই তাকে হত্যা, নির্যাতন, জেলে আটকে রাখার মতো জুলুম করেন! যদিও তারা মিথ্যা কিছু বলেনি অথচ আপনারা সবার জন্য সমান আইন প্রতিষ্ঠা করতে না পেরেও বড় গলায় বলে বেড়ান, গণতন্ত্র ব্যক্তি স্বাধীনতার কথা বলে? ব্যক্তি স্বাধীনতা থাকলে সবার জন্য সমান আইন বাস্তবায়ন হয়না কেন??

🔔কেউ আবার অন্যভাবে বলে থাকেন, যেহেতু শরীয়তও শূরা ব্যবস্থার মাধ্যমে খলীফা নির্বাচন করে থাকে। আর গণতন্ত্রও এ কথারই প্রবক্তা তাই উভয়টি একই বস্তু।

🎓গণতন্ত্রে একজন মুসলিমের ভোটের মূল্য আর কাফের, মুশরিক, নাস্তিক, নর্তকীর ভোটের মূল্য সমান। যার দিকে ভোট বেশি পড়বে সে খলিফা নির্বাচিত হয় অথচ ইসলামী খেলাফত ব্যবস্থায় খলিফা নির্বাচনে কেবল জ্ঞানী মুসলিমরা অংশগ্রহণ করার অধিকার রাখে। অজ্ঞ মুসলিম, ইসলামের শত্রু, কাফের, মুশরিকদের মতামত কখনও সঠিক হয়না।

🍟লেখক একজন সুহৃদ দাঈর ন্যায় উম্মাহর সামনে গণতন্ত্রের ভয়াবহতা,অসারতা ও প্রকৃত ক্ষতিকর দিলগুলো চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন। গণতন্ত্রের অনুসারীরা নিজেদের পক্ষে যে সমস্ত ভ্রান্ত দলীল ও যুক্তি উপস্থাপন করেন, তারও যথাযথ ও সমুচিত জবাব দিয়েছেন। যেন পাঠক নিজেদের ফিতনা থেকে বাঁচাতে সচেষ্ট হোন।

🌹সর্বশেষ তিনি প্রচলিত এ অসার জীবনব্যবস্থা পরির্তনের একমাত্র পথ সশস্ত্র জিহাদ ও বিপ্লবের যৌক্তিকতা ও তার শরঈ বিধান সম্পর্কে আলোকপাত করেছেন। যেন দ্বীনে ইসলামকে রহিত করপ সর্বগ্রাসী আগ্রাসন চালানো এই গণতান্ত্রিক জীবনব্যবস্থাকে আস্তাকুড়ে নিক্ষেপকারীগণ সঠিক দিক-নির্দেশনা লাভ করতে পারেন।

♥বইটা পড়ে গণতন্ত্র নিয়ে মনের ভেতরে উঁকি দেয়া বহু প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পেয়ে মহান রাব্বুল আলামীনের শুকরিয়া আদায় করতেছি। সে সাথে উম্মাহর নিকট গণতন্ত্রের ভয়াবহতা পৌঁছে দিতে পেরে মহান রবের নিকট শুকরিয়া আদায় করতেছি। লেখা পড়ে একবারও মনে হয়নি অনুবাদ পড়তেছি। সুন্দর হার্ড কভারে বইটি পাঠকের নিকট আকর্ষণীয় হয়েছে। পুরো বইতে বানান ভুল একটাও পায়নি। কাগজের মানও খুব ভালো। হালকা সবুজ রঙের ওপর ছাপানো বইয়ের লেখাগুলো পড়তে যেকারো ভালো লাগবে। গণতন্ত্র কেন কুফরী হবে? শূরা পদ্ধতি কি? জিহাদের দ্বারা শূরা পদ্ধতি আবারও কি করে রাষ্ট্রে বাস্তবায়ন করা যায় সে সম্পর্কেও সুন্দর আলোচনা পড়ে আমি মুগ্ধ। গণতন্ত্র সম্পর্কে পুরোপুরি অজ্ঞ, কম জ্ঞান সম্পন্ন ভাই-বোনদের প্রতি সময়ের দাবি থাকবে! আপনার অনতি বিলম্বে বইটি সংগ্রহ করে সে জ্ঞানের ওপর নিজেও চলুন, মুসলিম উম্মাহকে চলতে বলুন।আল্লাহ তা'আলা যেন এই কিতাবের ওসীলায় মুসলমানদের ব্যাপক উপকার পৌঁছান এবং এ উপমহাদেশের মুসলমানদের ইসলামী খিলাফত পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য সংঘবদ্ধ হওয়ার মাধ্যম বানান। আমিন

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন

এই বিষয়ে অন্যান্য বই