পড়ো

লেখক ওমর আল জাবির

প্রকাশক সমকালীন প্রকাশন

আইএসবিএন 9789849222309

পৃষ্ঠা সংখ্যা ১৮৪

মুদ্রিত মুল্য ৳ ২২০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ১৭৬.০০(-20% Off)

রেটিং

ক্যাটাগরি কুরআন বিষয়ক আলোচনা , ইসলামি বই

আমার মাতৃভাষা বাংলা। এই ভাষাকে সবচেয়ে বেশি ভালবাসি। আরবী ভাষাকেও অনেক ভালোবাসি। যখন থেকে আরবী শিখছি, তখন থেকেই প্রিয়। আরবী ভাষাকে জানি, আরবী ভাষার সম্পর্কে জানি, তাই বলতে পারি আরবীর কাছে বাংলা একটি "নিরীহ" ভাষা। সর্বোপরি পবিত্র কোরআন শরীফ এর ভাষা আরবী। যেই কিতাব এর ভাষায় খোদ আরবরা অভিভূত হয়েছিল। অথচ আরবদের জাতীয় ভাষাতেই অবতীর্ণ হয়েছিল এই কোরআন। তবুও কোরআন শুনে তাদের মুখ থেকে এমনিতেই বের হয়ে গিয়েছিল, "এ তো কোন মানবরচিত কথা নয়!!" এতো সুন্দর আর সাহিত্যপূর্ণ আমাদের কোরআন! বাংলা অথবা অন্য ভাষায় যত অনুবাদ হয়েছে কোরআনের, একটি অনুবাদও যে যথার্থ নয়, তা শতভাগ সত্য। একটি আরবী শব্দের তরজমা করতে কমপক্ষে একটি প্যারা লাগবে। সহজ বাংলায় এক শব্দে আরবী একটি শব্দের অর্থ তোলা সম্ভব নয়। কখনোই না। এই কারণে আজ এক শ্রেণির মানুষ শুধু বাংলা তরজমা পড়ে মনে করে তারা কোরআন বুঝে গেছে। বড্ড হাসি পায় তাদের কথা-কাজে। এই পবিত্র কোরআন নিয়েই লেখা হয়েছে "পড়ো।"

লেখক পরিচিতি : 
ওমর আল জাবির পেশায় একজন সফটওয়্যার প্রকৌশলী। ব্রিটিশ টেলিকম এর কনজুমার ডিভিশন ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রধান। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী নিয়েছেন। IOU তে ইসলামিক স্টাডিজে ডিপ্লোমা করেছেন। বর্তমানে মিশরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আজিজ মুহাম্মাদ এর তত্ত্বাবধানে আরবী এবং কুরআনের তাফসীর শিখছেন। তার প্রথম বই "Building a web 2.0 portal with ASP.NET 3.5" আমেরিকার ও'রিইলি পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

পাঠ প্রতিক্রিয়া : 
কোরআন একটি পূর্ণাঙ্গ জীবনবিধান। কথাটি জানতাম, বিশ্বাস করতাম। "পড়ো" পড়ে কথাটি অনুভব করতে শুরু করেছি। আকর্ষণীয় সব শিরোনামে কোরআন এর ব্যাখ্যা করেছেন লেখক। "আমার কাজে লাগবে এমন কিছু কোরআনে আছে কি?" এই শিরোনামে এমন অনেক বিষয় তুলে ধরেছেন, যেগুলো কোরআনে খুব সুন্দরভাবে আছে, কিন্তু জানতাম না। "সূরা ফাতিহা: আমরা যা শিখিনি" এই লেখাটি পড়ে অনুধাবন করতে লেগেছি, ইসলাম কী? দুনিয়াতে কেন এসেছি? আল্লাহ কত মেহেরবান! জীবনের মূল লক্ষ্য তো এই সূরায় বর্ণনা করা আছে। অথচ এই সূরা আমরা পড়ি। 
প্রতিদিন। 
প্রতি রাকাত নামাজে। 
কিন্তু শিখিনি, জানিনি সূরা ফাতিহাকে। "তার মতো আর কেউ নেই" শিরোনামে আলোচনা করেছেন সূরা ইখলাসের। এই সূরাও পড়া হয় প্রতিদিন। কিন্তু বুঝিনা, কী পড়ি আমরা! জানিনা এর মাহাত্ম্য। ভাবতেও পারি না, কত অর্থবহ এই সূরা! আল্লাহর একত্ববাদ কতটা সত্য! সত্যিই আল্লাহ মহান। এরপর থেকে সূরা বাক্বারার শুরুর আয়াত থেকে বেশ কিছু আয়াত সিরিয়াল অনুযায়ী আলোচনা করে গেছেন। লেখকের আলোচনায় উঠে এসেছে বিজ্ঞান ও যুক্তি। কোরআনের প্রজ্ঞা থেকে সৃষ্ট সবকিছু। আর লেখকের বর্ণনাভঙ্গি এতো সাবলীল যে, একটি পৃষ্ঠা পড়েছি, আবার পড়েছি, আবার পড়েছি। চমৎকার সব উদাহরণ এনেছেন তিনি। সত্যিই এভাবে কখনো বুঝতে চেষ্টা করিনি কোরআনকে!

শিক্ষা : 
এখানে সব কথার এক কথা বলা যায়, আল্লাহর চাহিদানুযায়ী জীবনযাপন এর পথ খুঁজে পাওয়া। কারণ, কোরআনে শিক্ষার অভাব নেই। প্রতিটি শব্দে রয়েছে শিক্ষা। আর এই শিক্ষাগুলোকে স্পষ্ট করতে চেয়েছেন লেখক আলোচনার মাধ্যমে।

বইসজ্জা : 
২০ টি আকর্ষণীয় শিরোনামে সাজানো হয়েছে বইটিকে। সবশেষে উপসংহারে চমৎকার কিছু কথা সংযোজন করা হয়েছে। দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদের পেছনের পাতায় কয়েকটি কথা হৃদয়ে লেগে থাকার মতো! প্রতি পৃষ্ঠার উপরের কিনারায় জলছাপের মত ছাপ দেয়া। গুরুত্বপূর্ণ টিকা সংযুক্ত করা হয়েছে। কোরআন এর আয়াত ও অর্থ উপরে-নীচে দাগ টেনে আলাদা করা হয়েছে। কিছু হাদীস যুক্ত করা হয়েছে হালকা কালি ব্যবহার করে।

সমালোচনা : 
একস্থানে "আল হাসান আল বসরী" লেখা আছে। অথচ নামের আগে "الف لام" আসেনা। এ ধরণের কিছু বানানভুল আছে। বিভিন্ন স্থানে "চৌধুরী সাহেব" নাম ব্যবহার করে উদাহরণ দেয়া হয়েছে। কোন চৌধুরী বংশের কেউ এটাকে নেগেটিভ নিবেন না। কারণ, প্রবাদ কথার মত হয়ে গেছে এই শব্দটি। এছাড়া এমন অমূল্য রত্নের কোন সমালোচনা হতে পারে না।

উপসংহার : 
আরবীর প্রতি অনুরাগী প্রতিটি মানুষের জন্য পরম উপকারী বইটি। আল্লাহ তায়ালার বাচনভঙ্গি বুঝতে পারবেন। আল্লাহর চয়ন জানতে পারবেন। শিখতে আগ্রহী হবেন আরবী ভাষা। কথাবার্তায় একঘেয়েমি দূর করার সবক পাবেন। তাই প্রতিটি মানুষের জন্য অনেক অনেক উপকারী বইটি।

সমকালীন প্রকাশন এর কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। স্পষ্ট যুক্তাক্ষরের বৈশিষ্ট্য এদের কাছেই দেখেছি। পৃষ্ঠা, কভার বাইন্ডিং অন্যান্য বইয়ের মতোই চমৎকার। "মুহাম্মাদ হুসাইন" ভাই বানান ও ভাষারীতির কাজ করেছেন। বইটির সাথে সম্পৃক্ত সকল ব্যক্তির জন্য শুভেচ্ছা কামনা করছি।

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন

এই বিষয়ে অন্যান্য বই