মেনু ক্যাটাগরি

অন্তরের রোগ -২য় খণ্ড

লেখক মুহাম্মাদ সালিহ আল মুনাজ্জিদ

অনুবাদক হাসান মাসরুর , আব্দুল্লাহ ইউসুফ

ছাড়ে মুল্য ৳ ২৭০.০০

বাজার মুল্য ৳ ২৭০.০০

রেটিং

কেউ নিজের স্ত্রীর সাথে আমোদ-প্রমোদ করে প্রতিদানের ভাগীদার হতে পারে, যদি সে নিয়ত শুদ্ধ করে নেয়। আমরা এ আমল থেকে একেবারেই উদাসীন! আবু যার রাযি. থেকে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন— ﻭَﻓِﻲ ﺑُﻀْﻊِ ﺃَﺣَﺪِﻛُﻢْ ﺻَﺪَﻗَﺔٌ، ﻗَﺎﻟُﻮﺍ : ﻳَﺎ ﺭَﺳُﻮﻝَ ﺍﻟﻠﻪِ، ﺃَﻳَﺄﺗِﻲ ﺃَﺣَﺪُﻧَﺎ ﺷَﻬْﻮَﺗَﻪُ ﻭَﻳَﻜُﻮﻥُ ﻟَﻪُ ﻓِﻴﻬَﺎ ﺃَﺟْﺮٌ؟ ﻗَﺎﻝَ : ﺃَﺭَﺃَﻳْﺘُﻢْ ﻟَﻮْ ﻭَﺿَﻌَﻬَﺎ ﻓِﻲ ﺣَﺮَﺍﻡٍ ﺃَﻛَﺎﻥَ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻓِﻴﻬَﺎ ﻭِﺯْﺭٌ؟ ﻓَﻜَﺬَﻟِﻚَ ﺇِﺫَﺍ ﻭَﺿَﻌَﻬَﺎ ﻓِﻲ ﺍﻟْﺤَﻠَﺎﻝِ ﻛَﺎﻥَ ﻟَﻪُ ﺃَﺟْﺮٌ “তোমাদের স্ত্রী সহবাসেও রয়েছে সদাকা। সাহাবাগণ বললেন, হে আল্লাহর রাসূল! আমাদের কেউ যদি প্রবৃত্তির চাহিদা মেটাবার জন্য আসে, তার জন্য তাতে প্রতিদানও হতে পারে? তিনি বললেন, তোমাদের অভিমত কী? যদি সে হারাম প্রক্রিয়ায় করত; তবে কি গুনাহ হতো? তেমনি যখন সে হালাল প্রক্রিয়ায় তা করবে, তার জন্য প্রতিদান থাকবে।” (সহীহ মুসলিম: ১০০৬) ইমাম নববী রহ. বলেন, এ থেকে বোঝা গেল, বৈধ কাজগুলোর ক্ষেত্রে উত্তম নিয়তের কারণে তা আনুগত্যে পরিণত হয়। ফলে সহবাস ইবাদত হয়, যখন এ ক্ষেত্রে স্ত্রীর অধিকার আদায়, আল্লাহর আদিষ্ট সৎকাজের মাধ্যমে তার সাথে আচরণ করা অথবা নেক সন্তান তালাশ, নিজেকে নিষ্পাপ রাখা বা স্ত্রীকে নিষ্পাপ রাখা, উভয়ে হারাম জিনিসের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া থেকে বেঁচে থাকা অথবা এ বিষয়ে চিন্তা করা থেকে, উদ্বিগ্ন হওয়া থেকে বাঁচাসহ অন্য সকল নেক উদ্দেশ্যে সহবাস করা হয়। (নববী রহ. কৃত মুসলিম শরীফের ব্যাখ্যা গ্রন্থ: ৭/৯২) ফলে অনেক ছোট আমলকে নিয়ত বিশাল ও বিরাট করে তোলে। অনেক বড় আমল নিয়তের ত্রুটির কারণে তুচ্ছ আমলে পরিণত হয়।  
আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন