মুক্তির কাণ্ডারী তাজউদ্দীন : কন্যার অভিবাদন

লেখক শারমিন আহমদ

প্রকাশক ঐতিহ্য

আইএসবিএন 9789847763163

পৃষ্ঠা সংখ্যা 224

মুদ্রিত মুল্য ৳ ৪০০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ৩৩০.০০

রেটিং

ক্যাটাগরি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব , রাজনীতি

আমার বাবা তাজউদ্দীন আহমদ সম্পর্কে লেখা এটি আমার তৃতীয় বই। তাঁকে নিয়ে রচিত প্রথম বই, “তাজউদ্দীন আহমদ নেতা ও পিতা” তে বিভিন্ন তথ্য, দলিল, গবেষণা, সাক্ষাৎকার ও স্মৃতিচারণার আলোকে তুলে ধরা হয়েছে, বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধের অনন্য পরিচালক এক রাষ্ট্রনায়কের অসাধারণ জীবন ও কর্মকে। দ্বিতীয় বই, “৩ নভেম্বর জেল হত্যার পূর্বাপর” রচিত হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী চার জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, মনসুর আলী ও কামরুজ্জামানের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নির্মম হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে। বর্তমান বইটিতে যুক্ত হয়েছে বাবাকে ঘিরে বিভিন্ন সময়ে লেখা রচনা। তাঁর অমর্ত্যলোকে যাত্রার পর, মৃত্যু এবং পরকাল নিয়ে আমার চিন্তা ও অনুসন্ধান থেকে সৃষ্ট হয়েছে “আলোর পথের যাত্রী” এই প্রবন্ধটি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পুনঃজন্ম দানকারী, এই দলটির চরম দুঃসময়ের নেত্রী ও আহ্বায়িকা আমার মা সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীনের কিছু লেখা এবং তাঁর সম্পর্কে আমার রচনা ও সমসাময়িক প্রবন্ধ প্রাসঙ্গিকভাবেই উল্লেখিত হয়েছে। বইটি যাকে উৎসর্গ করেছি, সেই প্রিয় বোন আনার আপা সম্পর্কে প্রবন্ধে তাঁর শৈশব-কৈশোর জীবনে দিক নির্দেশনাকারী, তাঁর প্রিয় বড়মামা, তাজউদ্দীন আহমদ মূর্ত হয়েছেন। বাবাকে নিয়ে প্রথম বইটি প্রকাশের পর যিনি অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছিলেন এবং ক্যানাডার ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটিতে ঐ বই-এর আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রেখে আমাকে সম্মানিত করেছিলেন, সেই প্রথিতযশা ব্যক্তিত্ব, ডঃ মীজান রহমান আমাকে অনুরোধ করেছিলেন, তাঁর প্রিয় নেতা তাজউদ্দীন আহমদ সম্পর্কে লেখা তাঁর প্রবন্ধটি যেন এই বইতে অন্তর্ভুক্ত করি। অন্যান্য স্বনামধন্যদের রচনার সাথে পরিশিষ্টে তাঁর লেখাটি যুক্ত হলো। কিন্তু তিনি দেখে যেতে পারলেন না, এই কষ্ট থেকেই গেল। বহুল আলোচিত তাজউদ্দীন আহমদ নেতা ও পিতা বইটি সম্পর্কে গুণীজনদের মন্তব্যও পরিশিষ্টে যোগ হলো।

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন