ঈমানের দুর্বলতা

লেখক মুহাম্মাদ সালিহ আল মুনাজ্জিদ

সম্পাদক মুফতি তারেকুজ্জামান

প্রকাশক রুহামা পাবলিকেশন্স

পৃষ্ঠা সংখ্যা ৮০

মুদ্রিত মুল্য ৳ ৮০.০০

ছাড়ে মুল্য ৳ ৮০.০০(0% Off)

রেটিং

ক্যাটাগরি ঈমান ও আক্বিদা , ইসলামি বই

ঈমানের দুর্বলতা আজ মুসলমানদের মাঝে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই নিজের অন্তঃকরণের কাঠিন্যতা স্বীকার করে। তাদের বক্তব্য এরূপ, আমি নিজের মনের কাঠিন্যতা অনুভব করি। ইবাদত করে মজা পাই না। আমি অনুভব করি যে, আমার ঈমানের শক্তি নেই। কুরআন পড়ে আমি প্রভাবিত হই না। সহজেই গুনাহের কাজে লিপ্ত হয়ে পড়ি।
অনেকের মাঝে এ ব্যাধি রয়েছে, তা স্পষ্টভাবে দেখা যায়। এ ব্যাধিই সব বিপদের মূল এবং সব অবনতির কারণ।
অন্তঃকরণের বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অন্তঃকরণকে আরবীতে ‘ক্বলব’Ñ পরিবর্তনশীল বলা হয়েছে। এ কারণেই যে, তা দ্রুত পরিবর্তনশীল। নবী কারীম ﷺ বলেন-
إِنَّمَا سُمِّيَ الْقَلْبُ مِنْ تَقَلُّبِهِ، إِنَّمَا مَثَلُ الْقَلْبِ كَمَثَلِ رِيشَةٍ مُعَلَّقَةٍ فِي أَصْلِ شَجَرَةٍ تُقَلِّبُهَا الرِّيحُ ظَهْرًا لِبَطْنٍ
“অন্তঃকরণকে ক্বলব বলা হয়েছে, তা বেশি বেশি পরিবর্তন হওয়ার কারণে। অন্তঃকরণের উদাহরণ হলো, একটি পাখির পালকের মতো। যা গাছের ডালে ঝুলানো আছে। বাতাস সেটিকে এদিক ওদিক ঘুরাচ্ছে।”
অপর বর্ণনায় এসেছে অন্তঃকরণের উদাহরণ হলো, একটি পাখির পালকের মতো; যা মরুভূমিতে পড়ে রয়েছে। বাতাস সেটিকে উলট-পালট করছে।
এটি খুবই পরিবর্তনশীল। যেমনটি রাসূল ﷺ তাঁর এ বাণীতে চিত্রিত করেছেন-
لَقَلْبُ ابْنِ آدَمَ أَسْرَعُ تَقَلُّبًا مِنَ الْقِدْرِ إِذَا اسْتَجْمَعَتْ غَلَيَانًا
“আদম সন্তানের অন্তঃকরণ ফুটন্ত পাতিলের চেয়েও দ্রুত পরিবর্তনশীল।” অপর বর্ণনায় এসেছে, “ফুটন্ত পাতিলের চেয়েও বেশি পরিবর্তনশীল।”
মহান আল্লাহ অন্তঃকরণকে পরিবর্তন করেন। হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনুল আস রাযি. হতে বর্ণিত। তিনি রাসূল ﷺ কে এ কথা বলতে শুনেছেন যে-
إِنَّ قُلُوبَ بَنِي آدَمَ كُلَّهَا بَيْنَ إِصْبَعَيْنِ مِنْ أَصَابِعِ الرَّحْمَنِ، كَقَلْبٍ وَاحِدٍ، يُصَرِّفُهُ حَيْثُ يَشَاءُ ثُمَّ قَالَ رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: اللهُمَّ مُصَرِّفَ الْقُلُوبِ صَرِّفْ قُلُوبَنَا عَلَى طَاعَتِكَ
“সমস্ত আদম সন্তানের অন্তর মহান প্রভুর দুই আঙ্গুলের মাঝে একটি অন্তঃকরণের ন্যায়। তিনি একে যেভাবে ইচ্ছা পরিবর্তন করেন। অতঃপর রাসূল ﷺ বলেন, হে অন্তঃকরণকে পরিবর্তনকারী! আপনি আমাদের অন্তঃকরণকে আপনার আনুগত্যের পানে ফিরিয়ে দিন।”
আল্লাহ তাআলা মানুষ ও তার অন্তকরণের মাঝে প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়ান। একমাত্র যারা অনুগত অন্তঃকরণ নিয়ে (আল্লাহর কাছে) উপস্থিত হবে, তারা ব্যতীত কিয়ামতের দিন আর কেউই মুক্তি পাবে না। আর যাদের অন্তঃকরণ আল্লাহ তাআলা’র স্মরণের ব্যাপারে কঠিন, তাদের জন্য ধ্বংসই অনিবার্য।
একজন মুমিনকে অবশ্যই তার অন্তঃকরণকে ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখতে হবে। সম্ভাব্য ব্যাধি সম্পর্কে জানতে হবে এবং রোগের কারণ বুঝে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে; যেন এতে কালো দাগ না পড়ে এবং তা ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে না পৌঁছে। বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং বিপজ্জনক। মহান আল্লাহ আমাদেরকে অন্ধ, কঠিন, বন্ধ, রোগাক্রান্ত এবং মোহরমারা অন্তর সম্পর্কে সতর্ক করেছেন।
আমরা পরবর্তী আলোচনায় ঈমানের দুর্বলতার কারণসমূহ চিহ্নিত করে এর চিকিৎসার ব্যাপারে আলোচনা করব। আমি মহান আল্লাহর সমীপে দুআ করি, তিনি যেন এ প্রচেষ্টার দ্বারা আমাকে এবং আমার ভাইদেরকে উপকৃত করেন এবং এর উত্তম প্রতিফল দান করেন। তিনি যেন আমাদের অন্তঃকরণকে নরম করে দেন এবং হিদায়াতের সঠিক পথ দেখান (আমীন)। তিনিই উত্তম অভিভাবক এবং উৎকৃষ্ট আশ্রয়স্থল।
 

আপনি লগড ইন নাই, দয়া করে লগ ইন করুন

এই বিষয়ে অন্যান্য বই